আজই স্ত্রীর নামে খুলুন এই বিশেষ অ্যাকাউন্ট, প্রতিমাসে পেনশন-44,000 টাকা। জেনে নিন উপায়

 আপনি যদি চান যে আপনার স্ত্রী স্বাবলম্বী হয়ে উঠুক যাতে আপনার অনুপস্থিতিতে ঘরে নিয়মিত আয় থাকে এবং ভবিষ্যতে আপনার স্ত্রী টাকার জন্য কারো উপর নির্ভরশীল না হয়, তাহলে আপনি আজই তার জন্য নিয়মিত আয়ের ব্যবস্থা করতে পারেন। এর জন্য আপনাকে জাতীয় পেনশন স্কিমে বিনিয়োগ করতে হবে।

 স্ত্রীর নামে নতুন পেনশন সিস্টেম অ্যাকাউন্ট খুলুনঃ 

আপনি আপনার স্ত্রীর নামে একটি নতুন পেনশন সিস্টেম (NPS) অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন।  NPS অ্যাকাউন্ট 60 বছর বয়সে পৌঁছলে আপনার স্ত্রীকে একমুঠো টাকা দেবে। এর পাশাপাশি প্রতি মাসে পেনশন আকারে তাদের নিয়মিত আয়ও থাকবে।  শুধু তাই নয়, এনপিএস অ্যাকাউন্ট দিয়ে আপনি আপনার স্ত্রী প্রতি মাসে কত পেনশন পাবেন তাও নির্ধারণ করতে পারেন।  এর ফলে আপনার স্ত্রী 60 বছর বয়সের পর অর্থের জন্য কারও উপর নির্ভরশীল হবেন না।  আমাদের এই স্কিম সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাক।

আজই স্ত্রীর নামে খুলুন এই বিশেষ অ্যাকাউন্ট, প্রতিমাসে পেনশন-44,000 টাকা জেনে নিন উপায়
আজই স্ত্রীর নামে খুলুন এই বিশেষ অ্যাকাউন্ট, প্রতিমাসে পেনশন-44,000 টাকা জেনে নিন উপায়

 এটি বিনিয়োগ করাও খুব সহজঃ 

 আপনি আপনার সুবিধা অনুযায়ী প্রতি মাসে বা বছরে নতুন পেনশন সিস্টেম (NPS) অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করতে পারেন।  আপনি মাত্র 1,000 টাকা দিয়ে আপনার স্ত্রীর নামে একটি NPS অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন।  NPS অ্যাকাউন্ট 60 বছর বয়সে পরিপক্ক হয়।  নতুন নিয়ম অনুযায়ী, আপনি চাইলে স্ত্রীর বয়স ৬৫ বছর না হওয়া পর্যন্ত NPS অ্যাকাউন্ট চালাতে পারবেন।

মাত্র 1 টাকায় আপনি পেতে পারেন 7 লাখ টাকা,সম্পূর্ণ জেনেনিন

 মাসিক আয় ৪৫ হাজার পর্যন্তঃ 

 উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনার স্ত্রীর বয়স 30 বছর হয় এবং আপনি তার NPS অ্যাকাউন্টে প্রতি মাসে 5000 টাকা বিনিয়োগ করেন।  যদি তিনি বার্ষিক বিনিয়োগে 10 শতাংশ রিটার্ন পান, তাহলে 60 বছর বয়সে তার অ্যাকাউন্টে মোট 1.12 কোটি টাকা থাকবে।  তারা এর মধ্যে প্রায় 45 লাখ টাকা পাবে।  এছাড়াও, তারা প্রতি মাসে প্রায় 45,000 টাকা পেনশন পেতে শুরু করবে।  সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল তারা আজীবন এই পেনশন পেতে থাকবেন।

পেনশন কত পাবেন?

  •  বয়স – 30 বছর
  • মোট বিনিয়োগের সময়কাল- 30 বছর
  • মাসিক অবদান – 5,000 টাকা
  • বিনিয়োগের আনুমানিক রিটার্ন – 10%
  • মোট পেনশন তহবিল – 1,11,98,471 টাকা (পরিমাণ মেয়াদে উত্তোলন করা যেতে পারে)
  • অ্যানুইটি প্ল্যান কেনার পরিমাণ – 44,79,388 টাকা
  • আনুমানিক বার্ষিক হার 8% – 67,19,083 টাকা
  • মাসিক পেনশন- 44,793 টাকা।

 ফান্ড ম্যানেজার অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করুনঃ 

NPS হল কেন্দ্রীয় সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা প্রকল্প।  আপনি এই স্কিমে যে অর্থ বিনিয়োগ করেন তা একজন পেশাদার ফান্ড ম্যানেজার দ্বারা পরিচালিত হয়।  কেন্দ্রীয় সরকার এই পেশাদার ফান্ড ম্যানেজারদের দায়িত্ব দেয়।  এই ক্ষেত্রে, NPS-এ আপনার বিনিয়োগ সম্পূর্ণ নিরাপদ।  যাইহোক, এই স্কিমের অধীনে আপনি যে অর্থ বিনিয়োগ করেন তার রিটার্ন নিশ্চিত নয়।  আর্থিক পরিকল্পনাবিদদের মতে, এনপিএস তার শুরু থেকে 10 থেকে 11 শতাংশ গড় বার্ষিক রিটার্ন দিয়েছে।

TELEGRAM CHENNAL: JOIN NOW 
GOOGLE NEWS: FOLLOW NOW

মোবাইল দিয়ে কিভাবে টাকা উপার্জন করবেন

এইরকম সংক্রান্ত আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে

Written by Biplab Mondal. 

পেনশন কত পাবেন?

বয়স - 30 বছর মোট বিনিয়োগের সময়কাল- 30 বছর মাসিক অবদান – 5,000 টাকা বিনিয়োগের আনুমানিক রিটার্ন – 10% মোট পেনশন তহবিল – 1,11,98,471 টাকা (পরিমাণ মেয়াদে উত্তোলন করা যেতে পারে) অ্যানুইটি প্ল্যান কেনার পরিমাণ – 44,79,388 টাকা আনুমানিক বার্ষিক হার 8% – 67,19,083 টাকা মাসিক পেনশন- 44,793 টাকা।

স্ত্রীর নামে নতুন পেনশন সিস্টেম অ্যাকাউন্ট খুলুনঃ

আপনি আপনার স্ত্রীর নামে একটি নতুন পেনশন সিস্টেম (NPS) অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। NPS অ্যাকাউন্ট 60 বছর বয়সে পৌঁছলে আপনার স্ত্রীকে একমুঠো টাকা দেবে। এর পাশাপাশি প্রতি মাসে পেনশন আকারে তাদের নিয়মিত আয়ও থাকবে। শুধু তাই নয়, এনপিএস অ্যাকাউন্ট দিয়ে আপনি আপনার স্ত্রী প্রতি মাসে কত পেনশন পাবেন তাও নির্ধারণ করতে পারেন।

মাসিক আয় ৪৫ হাজার পর্যন্তঃ

উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনার স্ত্রীর বয়স 30 বছর হয় এবং আপনি তার NPS অ্যাকাউন্টে প্রতি মাসে 5000 টাকা বিনিয়োগ করেন। যদি তিনি বার্ষিক বিনিয়োগে 10 শতাংশ রিটার্ন পান, তাহলে 60 বছর বয়সে তার অ্যাকাউন্টে মোট 1.12 কোটি টাকা থাকবে। তারা এর মধ্যে প্রায় 45 লাখ টাকা পাবে। এছাড়াও, তারা প্রতি মাসে প্রায় 45,000 টাকা পেনশন পেতে শুরু করবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল তারা আজীবন এই পেনশন পেতে থাকবেন।

Related Articles